0

এবার পুজোয়

এবারের পুজোটা বেশ ভাল কেটেছে। দুইদিন সরকারী ছুটির সাথে দুইদিন ক্যাজুয়াল লিভ। তারপরও বাসায় যেতে যেতে সপ্তমীর রাত। অষ্টমীর সকালবেলা ঘুমিয়ে পার করলাম।

বিকেলে বের হলাম মিঠু, পলাশ আর সুজন দাদাদের সাথে। উদ্দেশ্য পুরানো বান্ধবীদের বাড়ি। আমার সাথে ক্লাস ফাইভের পর কোন যোগাযোগ নেই। দুই বান্ধবীর বিয়ে হয়েছে। তাদের সন্তানদের জন্য কিনলাম বল আর টুপি। আমাকে অবাক করে দিয়ে দুই জনেই আমাকে চিনে ফেলল। আমি অবশ্য কাউকেই চিনতে পারি নি। বিশাল খানা দানা হল। অনেক ছবি তোলা হল। পরদিনও বিশাল ঘোরা হল।

20161013_103254-collage

দশমীর দিন সকালে গেলাম গ্রামের বাড়ী। এক বছর পর এলাম। গতবার পুজোর না আসায় সবাই খুব মন খারাপ করেছিল। এবারের যাওয়াটা অন্যরকম। সবাইকে বেশ সুখী মনে হল। আমাদের বাড়িটা ফাঁকা । শুধু ঠাকুরমা। ঘড়ের দরজায় শোলার ফুল বেঁধে দিলাম। পুরো বাড়ী শ্যাওলা পড়ে গেছে। বড় কাকার বাড়ি গিয়ে অনেকক্ষণ বসে থাকলাম। কর্তা মলা মুড়ি দিল। একদম বাড়ির ভাঁজা মুড়ি। অন্যরকম স্বাদ। দুপুরে সেখানেই ভাত খেলাম। কর্তা তার ঢাকা বেড়ানোর গল্প বললেন।

আগে দশমীর দিন আমরা অনেক মুড়ি, মুড়কি, মলা, নাড়ু বিতরণ করতাম। এবারো সে আশায় কেউ কেউ এসেছিল। কিছুই দেয়া হয়নি।

বিকেলে ঠাকুরমাকে নিয়ে বাসায় চলে আসলাম। দিনগুলো একদম আগের মত নেই।